Home / ত্বকের যত্ন / ৭ টি মারাত্মক শারীরিক সমস্যায় ১ গ্লাস আখের রস

৭ টি মারাত্মক শারীরিক সমস্যায় ১ গ্লাস আখের রস

loading...

আখ বা ইক্ষু অনেকেরই বেশ পছন্দের একটি ফল। তবে এই ফলটির খোসা ছাড়ানো একটু কষ্টকর বলে অনেকেই আখের রসটাই পান করতে অভ্যস্ত। যদিও পথে ঘাটে বিক্রীত আখের রসের চাইতে আখ খোসা ছাড়িয়ে খাওয়াই ভালো, তারপরও কেউ কষ্ট করতে চান না। গরমে অন্যান্য বোতলজাত পানীয়ের চাইতে আঁখের রসটাকেই অনেকে তেষ্টা মেটানোর জন্য পান করে থাকেন। কিন্তু শুধু তেষ্টাই মেটায় না আখের রস। মাত্র ১ গ্লাস আখের রস পান করার অভ্যাস আপনাকে প্রায় ৭ টি মারাত্মক শারীরিক সমস্যা থেকে দূরে রাখবে।

sugar-cain

১) লিভারের সমস্যা দূর করে :
আখের রস পান করার অভ্যাস দেহে বিলুরুবিনের মাত্রা নিয়ন্ত্রনে রাখে এবং লিভারের সুস্থতায় কাজ করে। আর এ কারণেই অনেক আগে থেকেই জন্ডিসের আয়ুর্বেদিক ঔষধ হিসেবে আখের রস পান করার প্রচলন রয়েছে।

২) হজম সংক্রান্ত সমস্যা প্রতিরোধ করে :
আখের রসে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে পটাশিয়াম। এই পটাশিয়াম অ্যান্টিমাইক্রোবিয়াল এজেন্ট হিসেবে কাজ করে যা হজমে সহায়তা করে এবং হজম সংক্রান্ত সমস্যা দূর করে।

৩) ডায়বেটিস নিয়ন্ত্রণে রাখে :
অনেকেই ভাবতে পারেন প্রাকৃতিক চিনি সমৃদ্ধ আখের রস ডায়বেটিস রোগীদের জন্য স্বাস্থ্যকর নয়। কিন্তু এই ধারণাটি সম্পূর্ণ ভুল। আখের রসে ডায়েবেটিস চিনির চাইতেও কম গ্লাইসেমিক ইনডেক্স রয়েছে যা ডায়বেটিস রোগীদের জন্য অত্যন্ত স্বাস্থ্যকর অন্যান্য যে কোনো আর্টিফিশিয়াল চিনির বিপরীতে।

৪) ক্যান্সার প্রতিরোধ করে :
জার্নাল অফ ফাইটোকেমিস্ট্রি’তে প্রকাশিত একটি গবেষণায় দেখা যায় আখের রসে বিদ্যমান ফ্লেভোনস দেহে ক্যান্সারের কোষ বৃদ্ধি ও ছড়ানো প্রতিরোধ করতে বিশেষভাবে কার্যকরী। আখের রসের অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট প্রোস্টেট ও স্তন ক্যান্সার প্রতিরোধে সহায়ক।

৫) পানি শূন্যতা দূর করে :
পানি শূন্যতা এই গরমে খুবই স্বাভাবিক একটি সমস্যা যা নানা রোগ বয়ে নিয়ে আসে। ক্যালসিয়াম, পটাশিয়াম, আয়রন ও ম্যাংগানিজ সমৃদ্ধ এই আখের রস ইলেক্টোলাইট ও পানির শূন্যতা দূর করতে বিশেষভাবে কার্যকরী।

৬) কিডনির সমস্যা দূর করে :
আখের রস প্রাকৃতিক অ্যাল্কালাইন যা অ্যান্টিবায়োটিক এজেন্ট হিসেবে কাজ করে এবং কিডনির সুস্থতা নিশ্চিত করতে সহায়তা করে। এছাড়াও আঁখের রস পানের অভ্যাস বুক জ্বালা পোড়া ধরণের সমস্যা এবং মুত্র নালীর ইনফেকশন প্রতিরোধ করে।

৭) দাঁত ও মাড়ির সমস্যা প্রতিরোধ করে :
আখের রসের প্রাকৃতিক অ্যাল্কালাইন অ্যান্টিবায়োটিক হিসেবে কাজ করে যা দাঁতের ক্ষয় বা মাড়ির ইনফেকশন প্রতিরোধে সহায়তা করে থাকে। এছাড়াও আখের রস মুখের দুর্গন্ধ দূর করতেও বিশেষভাবে সহায়ক।

মনে রাখুন কিছু জরুরী বিষয়
১) রাস্তার পাশের আখের রস স্বাস্থ্যের জন্য ভালো নয় কারণ এতে জীবাণু রয়েছে, আপনি আখের রস পান না করে আখ খাওয়ার অভ্যাস করলেও একই ফলাফল পাবেন, নতুবা বাসায় আখের রস তৈরি করে নিন।

২) অতিরিক্ত আখের রস পান করা স্বাস্থ্যের জন্য হানিকারক। দিনে ১ গ্লাস আখের রসই যথেষ্ট, নতুবা আপনার ওজন বৃদ্ধি পাবে এবং ডায়বেটিস রোগীদের রক্তে গ্লুকোজ বৃদ্ধি পাবে।
লেখাটি পছন্দ হইলে শেয়ার করতে ভুলবেন না।

About admin

Check Also

পিরিয়ড অবস্থায় স্ত্রীর সাথে সহবাস নিয়ে ইসলাম কী বলে?

loading... নারীর ঋতুস্রাবের রক্ত বন্ধ হওয়া ও তার গোসল করার আগ পর্যন্ত সহবাস নিষেধাজ্ঞা বহাল ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *